ব্রিটেনের জন্য কাজ করা আফগানরা স্থায়ীভাবে থাকতে পারবেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৩৮ পিএম, ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১

আফগান শরণার্থীদের জন্য বিশেষ সুযোগ দিচ্ছে যুক্তরাজ্য। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কার্যালয় থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ব্রিটিশ সেনাবাহিনী এবং দেশটির সরকারের হয়ে যেসব আফগান নাগরিক কাজ করেছেন তারা যুক্তরাজ্যে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ পাবেন।

এর আগে এসব শরণার্থীদের জন্য পাঁচ বছর যুক্তরাজ্যে অবস্থানের সুযোগ দেওয়ার কথা বলা হলেও এখন তা স্থায়ী করা হলো। গত ১৩ আগস্ট থেকে ৮ হাজারের বেশি আফগান নাগরিককে সরিয়ে নিয়েছে যুক্তরাজ্য। তবে লেবার পার্টি বলছে, আফগানিস্তানে ঝুঁকিতে থাকা লোকজনের জন্য আরও বেশি কিছু করার প্রয়োজন ছিল।

গতকাল (৩১ আগস্ট) আফগানিস্তান ছাড়ে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে যুক্তরাজ্য, জার্মানি এবং ভারতসহ বিভিন্ন দেশ তাদের নাগরিকদের সরিয়ে নেয়। ফলে আফগানিস্তানে ২০ বছর ধরে চলা বিদেশি সেনা উপস্থিতির ইতি ঘটেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাব বলেন, যুক্তরাজ্যে আসার মতো আফগানিস্তানে থাকা উপযুক্ত ব্যক্তিদের জন্য ‘নির্দিষ্ট’ পরিসংখ্যান তিনি এখনই দিতে পারছেন না। অপারেশন ওয়ার্ম ওয়েলকাম নামের একটি পরিকল্পনার বিষয়ে বিস্তারিত ঘোষণা দিতে গিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, যুক্তরাজ্যে আসা আফগান নাগরিকদের জীবন পুনর্গঠনে তাদের সহায়তা করার বিষয়ে নিশ্চয়তা দিতে চাইছে তারা।

প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর সঙ্গে কাজ করা আফগান নাগরিকদের প্রতি তাদের দায় রয়েছে। তিনি বলেন, আমি এ বিষয়ে নিশ্চয়তা দিচ্ছি যে, নতুন করে জীবন গঠনে তাদের এবং তাদের পরিবারের যা কিছু প্রয়োজন আমরা তাদের সে সহায়তা দেবো।

মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) যুক্তরাষ্ট্রের শেষ ফ্লাইট কাবুল বিমানবন্দর ছেড়ে যাওয়ার মাধ্যমে বিদেশি সেনাদের হাত থেকে মুক্ত হয় আফগানিস্তান। যুক্তরাষ্ট্র তাদের তল্পিতল্পা গুটিয়ে কাবুল ছাড়ার পর আফগানিস্তানকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দেয় তালেবান। সংগঠনের পক্ষ থেকে বলা হয়, আফগানিস্তান এখন স্বাধীন এবং সার্বভৌম রাষ্ট্র। ২০ বছরের যুদ্ধের অবসান ঘটিয়ে মার্কিন সেনাদের আফগানিস্তান ছাড়ার ঘটনাকে ঐতিহাসিক মুহূর্ত বলে উল্লেখ করা হয়।

টিটিএন/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]