বিজেপিকে ভোট না দেয়ার আহ্বান জানিয়ে কৃষকের আত্মহত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৩ পিএম, ১০ এপ্রিল ২০১৯
প্রতিকী ছবি

বৃহস্পতিবার ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হবে। দেশটির উত্তরাখন্ড রাজ্যের এক কৃষক একটি সুইসাইড নোট লিখে ক্ষমতাসীন মোদির ভারতীয় জনতা পার্টিকে (বিজেপি) ভোট না দেয়ার আহ্বান জানিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

ভারতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, সেই কৃষকের নাম ঈশ্বর চন্দ্র শর্মা। তার বয়স ৬৫ বছর। তিনি উত্তরাখণ্ডের হরিদর জেলার বাসিন্দা।

গত সোমবার সকালের দিকে তিনি বিষপান করে আত্মহত্যা করেন। আত্মহত্যার আগে তিনি ওই সুইসাইড নোটটি লেখেন। মৃত্যুর জন্য বিজেপি সরকারকে দায়ী করে যান তিনি।

ঈশ্বর চন্দ্র শর্মার অনেক ঋণের বোঝা ছিল। প্রতিবেদনে তার সুইসাইড নোটটি উদ্ধৃত করা হয়েছে। যেখানে লেখা ছিল, ‘গত পাঁচ বছরে বিজেপি সরকার কৃষকদের ধ্বংস করে দিয়েছে। তাদেরকে আর কোনোভাবেই ভোট দেয়া যাবে না। তাদের ভোট দিলে তারা সবাইকে চা বিক্রেতা বানিয়ে ছাড়বে।’

স্থানীয় পুলিশ বলছে, ঈশ্বর চন্দ্র শর্মার লেখা ওই সুইসাইড নোটটির সত্যতা যাঁচাই করা হবে। সেটি হলেই জানা যাবে কি কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে বিজেপিকে মৃত্যুর জন্য দায়ী করার বিষয়টি নিয়ে পুলিশ কোনো মন্তব্য করেনি। তবে ঘটনার তদন্ত চলছে বলে জানান তারা।

স্থানীয় বাসিন্দা ও শর্মার পরিবারের মাধ্যমে জানা যায়, তিনি একজন দালালের মাধ্যমে ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছিলেন। আর তার পরিবর্তে তিনি ওই দালালকে একটা ফাঁকা চেক (ব্ল্যাংক চেক) দেন। ওই দালাল তাকে হুমকি দিতে থাকেন যে তিনি ব্যাংক থেকে চেকের মাধ্যমে তার জমানো সব টাকা উঠিয়ে নেবেন।

স্টেশন হাউস কর্মকর্তা বীরেন্দর সিং বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্ত শেষে আমরা জানতে পেরেছি মৃত কৃষক ব্যংক থেকে এক দালালের সহযোগিতায় পাঁচ লাখ রুটি ঋণ নেন। সেই টাকা শোধও করেন তিনি। কিন্তু দালাল তার কাছ থেকে ঘটনা ‘মিটমাট’ করার জন্য আরও চার লাখ টাকা চান। নয়তো ব্ল্যাংক চেক দিয়ে সেই টাকা তুলে নেয়ার হুমকি দেন।’

এসএ/এমকেএইচ

টাইমলাইন