পৈতৃক আসনেও হারছেন রাহুল গান্ধী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৪ পিএম, ২৩ মে ২০১৯

গান্ধী পরিবারের রাজনৈতিক ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ভারতের উত্তরপ্রদেশের আমেথি আসনে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে পেছনে ফেলেছেন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) প্রার্থী স্মৃতি ইরানি। ২০০৪ সাল থেকে এই আসনে নির্বাচিত হয়ে কংগ্রেস সভাপতি লোকসভায় প্রতিনিধিত্ব করছেন। কিন্তু এবার পৈতৃক এই আসনে হারতে বসেছেন তিনি।

প্রাথমিক ভোট গণনায় রাহুল গান্ধীর চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন স্মৃতি ইরানি। তবে সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এই আসনে স্মৃতি ইরানির সঙ্গে তার তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হতে যাচ্ছে বলে খবর দিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

এছাড়া কেরালার ওয়াইয়ানাদ আসন থেকে নির্বাচনে লড়াই করছেন রাহুল গান্ধী। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুরু হওয়া ভোট গণনায় এই আসনে রাহুল প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। উত্তরপ্রদেশের রাজধানী লক্ষ্নৌ থেকে ১৩০ কিলোমিটার দূরের আসন আমেথি। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী এ আসন থেকে লড়াই করায় সবার নজরে রয়েছে।

২০১৪ সালের নির্বাচনে রাহুল গান্ধীর কাছে হেরে যাওয়ায় আমেথিতে এবার আগ্রাসী নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছিলেন স্মৃতি ইরানি। রাহুলের সঙ্গে তার ব্যবধান এক লাখের নিচে কমিয়ে এসেছে। এই আসনে প্রতিনিয়ত সফরে গেছেন তিনি। একই সঙ্গে সরকারের নেয়া বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যাপক প্রচারণা চালিয়েছেন স্মৃতি।

ভারতজুড়ে নির্বাচনী প্রচারণায় চষে বেড়ালেও আমেথিকে রাহুল গান্ধী তেমন গুরুত্ব দেননি বলে অভিযোগ করেছে বিজেপি। দেশটির ক্ষমতাসীন এই দল বলছে, রাহুল গান্ধী আমেথি আসনকে অবহেলা করেছে।

নির্বাচনী প্রচারণার সময়জুড়ে মাত্র একবার আমেথি সফরে গিয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। সেটিও তার মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার দিন। এরপর তাকে আর এই আসনের প্রচারণায় দেখা যায়নি। তবে তার বোন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী আমেথিতে এবং তার মা সোনিয়া গান্ধীর আসন রায়বেরেলিতে বেশ কয়েকবার সফর করেছিলেন।

গান্ধী পরিবারের ঐতিহ্যবাহী এই আসনে কংগ্রেস প্রার্থীরাই কয়েক দশক ধরে নির্বাচিত হয়ে আসছেন। কংগ্রেসের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত গান্ধী পরিবারের এই আসনে রাহুল হেরে গেলে তা বিজেপির জন্য বিশাল জয় হিসেবে বিবেচিত হবে।

১৯৯৮ সাল ছাড়া গত তিন দশকে এই আসনে একবারও হারেনি কংগ্রেসের কোনো প্রার্থীই।

সূত্র : এনডিটিভি।

এসআইএস/জেআইএম

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :