বিশেষ টয়লেট নিয়ে গুহায় যান মোদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৩ পিএম, ১৯ মে ২০১৯

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশটির শেষ দফার ভোটগ্রহণ শুরুর আগেরদিন কেদারনাথ মন্দিরে ধ্যানে বসেছিলেন। প্রায় ১৮ ঘণ্টার ধ্যান শেষে রোববার মন্দিরের সেই গুহা থেকে বেরিয়ে এসেছেন। কিন্তু দেশটির বিরোধী দলগুলো বলছে, ভোটারদের দৃষ্টি কাড়তেই গুহায় ধ্যানে বসেছিলেন মোদি।

দেশটির উত্তরাখণ্ড রাজ্যের গাড়োয়াল হিমালয় পর্বতশ্রেণিতে অবস্থিত কেদারনাথ শহরে মন্দাকিনী নদীর তীরে স্থাপিত ওই শিব মন্দির। এই মন্দিরের ১০ ফুট বাই ৮ ফুটের গুহায় বসেছিলেন মোদি। ১৮ ঘণ্টা ধ্যানমগ্ন থেকেছেন তিনি। এই দীর্ঘ সময়ে সেই গুহায় তার সঙ্গী হয়েছিল ওয়াইফাই ও টেলিফোন ব্যবস্থা। নিয়ে গিয়েছিলেন বিশেষ টয়লেট ও ব্যক্তিগত নিরাপত্তা রক্ষী।

ভারতের একটি গণমাধ্যম বলছে, শনিবার কেদারনাথে পূজা সেরে সারারাত ধ্যান করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ছবিতে দেখা যায়, শরীরে গেরুয়া কাপড় জড়িয়ে পদ্মাসনে ধ্যানে বসেছেন তিনি। রোববার সকালের দিকে সেখান থেকে বেরিয়ে উত্তরাখণ্ডের অপর বিখ্যাত মন্দির বদ্রীনাথে পূজা দেন মোদি।

আরও পড়ুন : ভোটারদের মন জয় করতে মন্দিরের গুহায় ধ্যানে বসেছেন মোদি

বৃহস্পতিবার দেশটির ১৭তম লোকসভা নির্বাচনের সপ্তম দফার প্রচার শেষ হয়েছে। এই সময় নরেন্দ্র মোদিকে কেদারনাথ ও বদ্রীনাথ মন্দির দর্শনে অনুমতি দিয়েছে দেশটির নির্বাচন কমিশন। শনিবার সম্পূর্ণ পাহাড়ি পোশাকে সেজে প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে কেদারনাথ মন্দিরে পূজা দেন নরেন্দ্র মোদি। ধ্যান করার পাশাপাশি তিনি মন্দির শহরের উন্নয়নের কাজও খতিয়ে দেখেন।

এদিকে, নির্বাচনের সময় প্রধানমন্ত্রীর কেদারনাথ মন্দিরে ধ্যান এবং উন্নয়নকাজ খতিয়ে দেখায় দেশটির নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়েছে বলে নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ করেছে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেস।

এসআইএস/এমএস

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :