বিয়ে করেই ভোট দিতে গেলেন নবদম্পতি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১৪ পিএম, ২৯ এপ্রিল ২০১৯

বিয়ের পর স্বামীর কাছে প্রথমবার কোন আবদার করেছেন স্ত্রী। স্বামীও তার সদ্য বিবাহিতা স্ত্রীর মুখে হাসি ফোটাতে সেই আবদার মেনে নিলেন। শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার আগেই লাল বেনারসি-ওড়না, সোনার গহনায় সেজে নতুন বউ হাজির হলো ভোটকেন্দ্রে। ভোট দিয়ে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করলেন তিনি।

স্ত্রীর ইচ্ছা পূরণে তার পাশেই ছিলেন স্বামী। ভারতের পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ায় ক্যামেরাবন্দি হয়েছে বর-বউয়ের সাজে নবদম্পতির ভোটদানের সেই ছবি।

কাটোয়ার গোয়ালপাড়ার বাসিন্দা মৌ পোদ্দার। অন্যদিকে, কাটোয়ারই পঞ্চাননতলার বাসিন্দা অভিজিত দত্ত। রোববার রাতেই তাদের বিয়ে হয়। অগ্নিসাক্ষী রেখে স্ত্রী মৌয়ের সব ইচ্ছা পূরণের অঙ্গীকার করেন স্বামী অভিজিত। সুন্দরভাবেই তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

রীতি অনুযায়ী সোমবার সকালে স্বামীর সঙ্গে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার কথা ছিল মৌয়ের। শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার আগে বাবার বাড়িতে যখন সবাই নবদম্পতির সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য আশীর্বাদ করছেন, তখনই স্বামীর কাছে আবদার করে বসেন মৌ।

ভারতের সাত দফা লোকসভা নির্বাচনের চতুর্থ দফার ভোট হচ্ছে বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রে। ওই কেন্দ্রের অন্তর্গত কাটোয়া বিধানসভা। বিয়ের অনুষ্ঠানের পর নিজের ভোটের অধিকার থেকে বিরত থাকতে চাননি মৌ। বরং দেশের একজন দায়িত্ববান নাগরিক হিসেবে মৌ চেয়েছিলেন নিজের ভোট নিজে দিতে। সেই ইচ্ছার কথাই অকপটে স্বামী অভিজিতকে জানান তিনি।

সদ্য বিবাহিতা স্ত্রীর ইচ্ছার কথা শুনে আর ইতস্তত করেননি অভিজিতও। বর-বউয়ের সাজেই সোজা স্ত্রীকে নিয়ে হাজির হন সংশ্লিষ্ট বুথে। ভোট দেন মৌ। নববধূর সাজে মৌ ভোট দিয়ে বলেন, ভোট দিয়েই শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলাম স্বামীর কাছে। নিজেই আমাকে ভোটকেন্দ্রে নিয়ে এসেছেন তিনি। ভোট দিতে পেরে আমি খুব খুশি।

টিটিএন/এমএস

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :