দিল্লিতে বিজেপি ঠেকাতে কংগ্রেস-আম আদমি পার্টির জোট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:২৬ এএম, ০৬ এপ্রিল ২০১৯

দিল্লিতে বিজেপি ঠেকাতে লোকসভা নির্বাচনের ঠিক পাঁচদিন আগে পুরনো প্রতিপক্ষ আম আদমি পার্টির (এএপি) সঙ্গে জোট গঠন চূড়ান্ত করেছে কংগ্রেস। এএপি নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে রাহুল গান্ধীর হাত মেলানো নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই যে জল্পনা চলছিল তাই শেষ পর্যন্ত সত্যি হতে চলেছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, দিল্লির সাতটি লোকসভা আসনের মধ্যে চারটিতে প্রার্থী দেবে আম আদমি পার্টি আর বাকি তিনটিতে কংগ্রেস। যদিও শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত এএপি কিংবা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে দিল্লিতে জোট গঠন প্রসঙ্গে কিছু বলা হয়নি।

কংগ্রেস নেতা পি সি চাকো শুক্রবার জানান, রাহুল গান্ধী পুনেতে জনসভা শেষে দিল্লি ফেরার পরেই জোট গঠনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন। তাছাড়া হরিয়ানা রাজ্যেও দিল্লির ক্ষমতাসীন দল এএপি ও কংগ্রেসের জোট গঠন হবে বলে জানান তিনি। তবে পাঞ্জাবে জোট হবে কি-না সে ব্যাপারে এখনও নিশ্চিত কিছু জানা যায়নি।

সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, পূর্ব দিল্লি, উত্তর-পশ্চিম দিল্লি ও নয়াদিল্লি আসনে প্রার্থী দেবে কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি। কংগ্রেসের প্রার্থী থাকবে চাঁদনি চক, পশ্চিম দিল্লি, উত্তর-পূর্ব দিল্লি ও দক্ষিণ দিল্লির মধ্যে যে কোনও তিনটি কেন্দ্রে।

কংগ্রেস নেতা পি সি চাকো বলেন, ‘আজ (শুক্রবার) দুই দলের মধ্যে জোট নিয়ে কোনও কথা হয়নি। তবে এর আগে রাহুল গান্ধী দিল্লি কংগ্রেসের জ্যেষ্ঠ নেতাদের ডেকে পাঠিয়ে বৈঠক করেছিলেন। জোটের সিদ্ধান্তের ব্যাপারটি আমরা কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর ওপরেই ছেড়ে দিয়েছি। নির্বাচনী প্রচার সেরে রাজধানীতে ফিরে তিনি সিদ্ধান্ত নিলেই আমরা জোটের কাজ শুরু করব।’

গত মাস থেকেই কংগ্রেসের সঙ্গে জোট গঠনের বিষয়ে একাধিকবার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী তথা আম আদমি পার্টির (এএপি) প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল। রাহুল গান্ধীও একবার এ প্রসঙ্গে সবুজ সংকেত দেন। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত এর আগে চূড়ান্ত হয়নি।

দলের অভ্যন্তরে মাঝে মাঝে শোনা যেত, কংগ্রেস-এএপি জোট হতে পারে। আবার এও শোনা যায় জোট গঠনের সম্ভাবনা নেই। তবে এই সিদ্ধান্তহীনতার মধ্যেই অতীতের তিক্ততা ভুলে বিজেপিকে ঠেকানোর লক্ষ্যে দুই দল জোট গঠনের সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে। কোন আসনে কে প্রার্থী দেবে এ বিষয়েও রাহুল গান্ধী ও কেজরিওয়ালের মধ্যে কথা হয়েছে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, কংগ্রেস দলীয় দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিতকে হারিয়ে অনেক লড়াই করে রাজধানীর মসনদে বসেন এএপি’র অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তারপর থেকেই দিল্লিতে ক্রমশ শক্তি হারাতে থাকে কংগ্রেস। অন্যদিকে বিজেপির আগ্রাসন বেড়ে যাওয়ায় তাদের ঠেকাতেই পুরনো দুই প্রতিপক্ষ জোট গঠন করতে যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, আগামী ১১ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে ভারতের ১৭তম লোকসভা নির্বাচনের ভোট পর্ব। সাত দফায় এই ভোটগ্রহণ শেষ হবে ১৯ মে। আর ফল প্রকাশ হবে ২৩ মে।

এসএ/জেআইএম

টাইমলাইন