ভারতে রাতভর ইভিএম পাহারায় বিরোধীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৩ পিএম, ২২ মে ২০১৯

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার আগে ইভিএম কারচুপির আতঙ্কে রাতভর স্টোররুমে রাখা ইভিএম পাহারা দিয়েছে বিভিন্ন রাজ্যের বিরোধী দলগুলো। ভোটগণনার আগে এখন সব ধরনের জল্পনা-কল্পনার কেন্দ্রে রয়েছে ইভিএম।

বিরোধীদের আশঙ্কা, ইভিএম বদলে ভোটের ফল উল্টে দেওয়ার চেষ্টা করতে পারে শাসক দল। সেই আশঙ্কা আরও বেড়েছে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা একাধিক ভিডিও থেকে। এসব ভিডিওতে নিরাপত্তাবিহীন অবস্থায় ইভিএম আনা-নেওয়ার ছবি দেখা গেছে। নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে অবশ্য সব ধরনের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলা হয়েছে, ইভিএমে কারচুপির কোনও প্রশ্নই নেই। ভোটে ব্যবহৃত সব ইভিএম স্ট্রং রুমে আধাসেনা বাহিনীর কড়া পাহারায় সুরক্ষিত রয়েছে।

ইভিএম নিয়ে নির্বাচন কমিশনকে চাপে রাখতে ২২টি বিরোধী দলের নেতারা দিল্লিতে নির্বাচন সদনে গিয়েছিলেন। অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডু উত্তরপ্রদেশের গাজিপুর, চন্দৌলি, ডোমারিয়াগঞ্জ ও ঝাঁসিসহ বিহার, ঝাড়খণ্ড থেকে ছড়িয়ে পড়া একাধিক ভিডিও কমিশন কর্তাদের দেখিয়ে বলেন, নিরাপত্তা রক্ষীদের অনুপস্থিতিতে ইভিএম রাখার ওই ভিডিওগুলো মূলত বিজেপিশাসিত রাজ্য থেকেই আসছে। অতএব তাদের আশঙ্কা এসব ইভিএমের মাধ্যমে কারচুপি করতে পারে বিজেপি।

মঙ্গলবার রাতে কেন্দ্রীয় জেলের স্টোররুমে রাখা ভোটিং মেশিন দেখতে গিয়েছিলেন মধ্যপ্রদেশের ভূপালের প্রার্থী এবং কংগ্রেসের শীর্ষ নেতা দিগ্বিজয়া সিং এবং তার স্ত্রী। উত্তর প্রদেশের মেরুত এবং রায়বারেলিতে ইভিম স্টোর রুমের বাইরে জড়ো হয়েছিলেন কংগ্রেসের কর্মীরা।

মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সাক্ষাত করেছে ২২ টি বিরোধী দল। পাঁচ রাজ্যে ইভিএম আনা নেয়ার ভিডিও নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন তারা। ইভিএমন আনা নেয়ার সময় কিছু ক্ষেত্রে নিরাপত্তা মানা হয়নি। কিন্তু এ বিষয়ে কোন জবাব দেয়নি কমিশন। তবে কমিশন জানিয়েছে, তদন্তের পর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রের যে পাঁচটি বুথের ভিভিপ্যাট স্লিপ গোনা হবে, সেগুলো মূল গণনার আগেই গুনে ইভিএমের ফলাফলের সঙ্গে মিলিয়ে দেখার দাবি জানিয়েছে বিরোধী দলগুলো। কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ বলেন, যদি ইভিএম এবং ভিভিপ্যাটের ফল না পাওয়া যায় তবে কেন্দ্রের সবগুলো ভিভিপ্যাটের স্লিপ গুনে ইভিএমের ফলাফলের সঙ্গে মেলানো হবে। কমিশন অবশ্য সব ইভিএম গোনার পরেই পাঁচটি ভিভিপ্যাটের স্লিপ গুনে মিলিয়ে দেখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে, চান্দিগরে সোমবার থেকেই ইভিএম পাহারা দিতে দেখা গেছে কংগ্রেসের কর্মীদের। ভোটিং মেশিন যেন কোনভাবেই এদিক সেদিক করা না যায় সেজন্য স্ট্রংরুমের বাইরে বসে ছিলেন তারা।

মঙ্গলবার মহারাষ্ট্রে নির্বাচন কমিশনের কাছে চিঠি লেখেন মুম্বাই কংগ্রেসের প্রধান মাইলিন্দ দেওরা। স্টোররুমের বাইরে নিরাপত্তা জোরদারের আহ্বান জানান তিনি। একই সঙ্গে নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রার্থীদের স্টোররুমে লাগানো সিসিটিভির পাসওয়ার্ড দেয়ারও আহ্বান জানানো হয়। এতে করে তারা পুরো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।

টিটিএন/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :