ফেরদৌসের পর ফাঁসলেন রাজা রাজচন্দ্র, ভারত ছাড়ার নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২৪ পিএম, ১৮ এপ্রিল ২০১৯

চলচ্চিত্র অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদের পর বাংলাদেশি আরেক অভিনেতা গাজি আবদুন নূরকেও ভারত ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মদন মিত্রের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার দায়ে তাকে বাংলাদেশে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ভারতের জনপ্রিয় ‘করুণাময়ী রানি রাসমণি’ ধারাবাহিকে রাজা রাজ চন্দ্রের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন গাজি আবদুন নূর। জি বাংলার জনপ্রিয় এই সিরিয়ালের অন্যতম চরিত্র ‘রাজা রাজচন্দ্র।’ চরিত্রটিতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের বাগেরহাটের বাসিন্দা গাজি আবদুন নূর। বর্তমানে ভারতে বাংলা সিরিয়ালের দর্শকদের অত্যন্ত জনপ্রিয় তিনি।

gazi

বৃহস্পতিবার ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, ব্যবসায়িক ভিসায় ভারতে এসে রাজনৈতিক প্রচার চালিয়েছেন নুর। তার ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও কলকাতায় নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়েছেন তিনি। ভিসা আইন লঙ্ঘনের দায়ে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়ারও হুঁশিয়ারি দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

গত রোববার উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী কানাইয়া লাল আগারওয়ালের পক্ষে ভোটের প্রচার চালান ফেরদৌস আহমেদ। ওই সময় তার সঙ্গে ছিলেন টালিউড তারকা অঙ্কুশ হাজরা ও পায়েল। তৃণমূলের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেয়ার জেরে দেশটিতে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন বাংলাদেশি এই অভিনেতা।

মঙ্গলবার ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) পশ্চিমবঙ্গ শাখা ফেরদৌস আহমেদকে ভিসা বিধি লঙ্ঘনের দায়ে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে দেশটির নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করে।

gazi

পরে কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশ ডেপুটি হাই-কমিশনও ফেরদৌসকে ভারত ত্যাগ করে দেশে ফেরার নির্দেশ দেয়। ওই নির্দেশনা পাওয়ার পর রাতেই ঢাকায় ফেরেন তিনি।

ফেরদৌস ছাড়াও কলকাতায় মদন মিত্রের সঙ্গে রাম নবমীর মিছিলে রাণী রাসমণি খ্যাত অভিনেতা গাজি আবদুন নুরকেও দেখা যায়। দমদমে সৌগত রায়ের হয়ে প্রচার করেন এই বাংলাদেশি নাগরিক।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জিনিউজ বলছে, ভারতে কাজের অনুমোদনপত্র ছিল এ দুই বাংলাদেশি অভিনেতার। সেই হিসেবে ভিসা পেয়েছিলেন তারা। কিন্তু ভিসার শর্ত লঙ্ঘন করে রাজনৈতিক প্রচারে সামিল হন তারা। গাজি নুরের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করে বিজেপি।

পশ্চিমবঙ্গ শাখা বিজেপির নেতা রাহুল সিনহা অভিযোগ করে বলেছিলেন, জামায়াতে ইসলামির সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের যোগাযোগে ফেরদৌস আহমেদকে নির্বাচনী প্রচারে নামানো হয়েছে।

সূত্র : জি নিউজ।

এসআইএস/পিআর

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :