পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৮ পিএম, ১১ এপ্রিল ২০১৯

পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার তুফানগঞ্জ শহরে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার শুরু হওয়ার লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের যে দুটি আসনে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে তার মধ্যে কোচবিহার একটি।

কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার বলছে, তুফানগঞ্জ শহরের ধলপলে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপি কার্যালয় ভেঙে দেয়ার অভিযোগও উঠেছে। যদিও বিজেপির তোলা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিকে কোচবিহারে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের বিরুদ্ধে ভোটে প্রভাব খাটানোর অভিযোগ তুলেছে কংগ্রেস। তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ ঘোষ জানিয়েছেন, নিয়ম না মেনে বুথের মধ্যে ঢুকে পড়ছেন বিএসএফ জওয়ানরা। পাশাপাশি ইভিএম কারচুপির অভিযোগও তুলেছেন তিনি।

ওই তৃণমূল দাবি করেছেন, এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনে জানালেও অভিযোগ নেয়া হয়নি। শেষ পর্যন্ত তিনি তার অভিযোগ জেলা প্রশাসককে জানিয়েছেন। রাজ্যের পুলিশ দিয়ে ভোট করালে অনেক সুষ্ঠু ভাবে নির্বাচন করানো সম্ভব হত বলে মত তার।

তৃণমূল এবং বিজেপি কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ ঘিরে উত্তপ্ত দিনহাটা। তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে ভোটারদের মারধরের অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। তৃণমূল কর্মীদের হামলায় এক বিজেপি সমর্থকের মাথা ফেটেছে বলে জানা যাচ্ছে।

বিজেপি সমর্থকদের পাল্টা হামলায় বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মীও জখম হয়েছেন। সংঘর্ষের ঘটনা জানার পর প্রশাসনের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন। সর্বোচ্চ সংখ্যক বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েনের ব্যবস্থা করছে নির্বাচন কমিশন।

উল্লেখ্য, আজ ভারতের ১৮টি রাজ্য এবং ২টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে মোট ৯১টি আসনে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গের দুটি আসনের মধ্যে একটি হলো কোচবিহার অন্যটি আলিপুরদুয়ার। দুই আসনেই মূল লড়াই তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে।

এসএ/জেআইএম

টাইমলাইন