কবির সুমনকে আপত্তিকর বার্তা দিলেন বাবুল সুপ্রিয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০৩ পিএম, ০৮ মে ২০১৯

দুই বাংলার জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী কবির সুমনকে হোয়াটসঅ্যাপে আপত্তিকর বার্তা দিয়েছেন কলকাতার গায়ক ও ক্ষমতাসীন বিজেপিদলীয় সাংসদ এবং সাবেক কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। কবির সুমন সেই হোয়াটসঅ্যাপ বার্তা ফেসবুকে প্রকাশ করে ক্ষোভ জানিয়েছেন।

কবির সুমন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে বাবুল সুপ্রিয়’র পাঠানো বর্তাটি তুলে দিয়েছেন। ‘কবি(র) সুমনদাদা.. যে হিন্দু ভাইয়েরা দিনের পর দিন অত্যাচারিত হচ্ছে আমাদের বাংলায়, আপনার মমতাময়ী মুখ্যমন্ত্রীর ‘অনুপ্রেরণায়’, তাদের নিয়ে কখনও কোনো কবিতা লিখতে ইচ্ছে করে না? না কি ‘হটাৎ’ ধর্মান্তরিত হয়ে ‘কবির’ কবি তার সু-মন টি হারিয়ে ফেলেছে!! ‘খুব জানতে ইচ্ছে করে, ‘‘তুমি কি সেই আগে মতোই আছো .... ?’’ প্রনাম নেবেন।’

কবির সুমন লিখেছেন, এইভাবে আজ সকালে হোয়াটসঅ্যাপ করলেন একজন আজ সকালে। প্রথমেই আমার নাম নিয়ে ঠাট্টা। তারপর ‘আপনার মমতাময়ী...’ ইত্যাদি। প্রেরকের নাম সেভড ছিল না। পরে জানলাম তিনি বাবুল সুপ্রিয়। আমাদের মধ্যে বাদানুবাদ চলল। তাকে জানালাম আমি ফেসবুকে তুলে দিচ্ছি।

এক সাংবাদিক জানতে চাইলেন হোয়াটসঅ্যাপ সংলাপ ফেসবুকে তুলে দেয়া এথিকাল কিনা। আমি জানতে চাইলাম বলা নেই কওয়া নেই আমার নাম নিয়ে ইয়ার্কি মারাটা, আপনার মমতাময়ী, তারপর আমার ধর্মান্তর নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ করাটা এথিকাল কিনা।

ভারত রাষ্ট্রের প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেটের এফিডেভিট বলে আমার নাম ২০০০ সাল থেকে কবীর সুমন। বাবুল সুপ্রিয় বাবু তারপরেও ‘‘কবির’’ ‘‘কবি’’ ইত্যাদি করে গেছেন। তখনও জানি না উনি কে। ওঁর আচরণ, বচন, লেখা এথিকাল তো?

আমি বিজেপির বিরুদ্ধে। হ্যাঁ, এই ভোটে আমি শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষে। এর আগে বাবুল সুপ্রিয় বাবুকে বলেছি বিতর্কে আমি নেই। ভদ্রভাষায় ওটি হয় না। মেজাজ চড়ে যায়। যা তা ব্যাপার হয়।

বরং বিজেপির মানুষ বাবুল সুপ্রিয় আমার সঙ্গে এক মঞ্চে এসে রাজনৈতিক গান করুন। আমি বিজেপি আর এস এস হিন্দুত্বর বিরুদ্ধে গাইব, বাজাব। উনি আমার বা মমতার বিরুদ্ধে গান। ইচ্ছে করলে সারা ভারত থেকে সহশিল্পী আনতে পারেন। আমি একা থাকব।

কবির সুমন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসের শেষে লিখেছেন, ‘ক্ষমতায় কুলোলে আমার চ্যালেঞ্জটা নিন। খোদা হাফেজ বিজেপি! কবীর সুমন। ৮ মে ২০১৯। বিকেল ৫টা ৩০ মিনিট।’

Kabir

এসএ/এমকেএইচ

টাইমলাইন