ফেরদৌসকে ব্ল্যাক লিস্টে ফেলল ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:০০ পিএম, ১৬ এপ্রিল ২০১৯

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়া চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদের ভিসা বাতিলের পর তাকে কালো তালিকাভূক্ত করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। ভিসার শর্ত লঙ্ঘন করে রাজ্যের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণা চালানোর দায়ে মঙ্গলবার এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, বাংলাদেশে প্রখ্যাত অভিনেতা ফেরদৌস আহমদেকে শিগগিরই দেশে ফেরত পাঠানো হবে। পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে ভিসার শর্ত লঙ্ঘন করায় তাকে কালো তালিকাভূক্ত করা হয়েছে।

তৃণমূলের রোড শোতে ফেরদৌসের উপস্থিতির পর ভারতের অভিবাসন ব্যুরোর কাছে প্রতিবেদন চেয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

আরও পড়ুন : ফেরদৌসকে দেশে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ

রোববার উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ জেলার তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী কানাইয়া লাল আগারওয়ালের পক্ষে ভোটের প্রচারণা চালান তিনি। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন টালিউড তারকা অঙ্কুশ হাজরা ও পায়েল। তৃণমূলের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেয়ার জেরে দেশটিতে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন বাংলাদেশি এই অভিনেতা।

মঙ্গলবার ভারতের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) পশ্চিমবঙ্গ শাখা ফেরদৌস আহমেদকে ভিসা বিধি লঙ্ঘনের দায়ে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে দেশটির নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে।

তবে সোমবার ভারতের নির্বাচন কমিশন বলছে, কোনো রাজনৈতিক দলের পক্ষে বিদেশি নাগরিক প্রচারণা চালালে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন হবে কি-না সেব্যাপারে এ সংক্রান্ত আইনে পরিষ্কার কোনো বর্ণনা নেই।

আরও পড়ুন : গ্রেফতার হতে পারেন নায়ক ফেরদৌস!

দেশটির অতিরিক্ত প্রধান নির্বাচনী কর্মকর্তা সঞ্জয় বসু বলেছেন, এ ব্যাপারে নির্বাচনী আইনে নির্দিষ্ট করে কোনো কিছু বলা নেই। তবে কেউ যদি অভিযোগ করেন, তাহলে আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখব।

এনডিটিভি বলছে, ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ফেরদৌসের বিজনেস ভিসা বাতিল করেছে। একই সঙ্গে তাকে ভারত ত্যাগের নির্দেশ দিয়ে নোটিশ জারি করা হয়েছে। কলকাতায় নিযুক্ত ভারতীয় ফরেইনার্স রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিসকে শিগগিরই এই নির্দেশ বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

জেডএ/এসআইএস/এমএস

টাইমলাইন  

আপনার মতামত লিখুন :