বিএসএমএমইউতে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমেছে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৩:৩৫ পিএম, ১২ আগস্ট ২০১৯

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমেছে। গতকাল রোববার ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা ১৯৫ জন থাকলেও আজ সোমবার তা কমে ১৪০ জনে দাঁড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি হয়েছে ২৮ জন। পুরাতন রোগীর সংখ্যা ১১২ জন।

বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া দুপুরে জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপকালে জানান, হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেশ কমেছে। তিনি আজ ঈদের দিনও বিশ্ববিদ্যালয়ে ছুটে আসেন। তিনি ডেঙ্গু ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রোগীদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নেন।

গত ২৭ আগস্ট থেকে আজ (১২ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত ডেঙ্গু চিকিৎসা সেলে ৬১৭ রোগী ভর্তি হয়েছেন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৪৭৫ জন। এদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৯।

dengue2

মেডিসিন ওয়ার্ড, শিশু ওয়ার্ড, ডেঙ্গু চিকিৎসা সেল, কেবিন, আইসিইউ ও এইচডিইউতে এসব রোগী ভর্তি আছেন। বর্তমানে আইসিইউতে একজন এবং এইচডিইউতে চারজন রোগী ভর্তি আছেন। উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার বিষয়ে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছেন।

উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক, নার্সদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বিএম আব্দুল হান্নান, অতিরিক্ত পরিচালক (হাসপাতাল) ডা. নাজমুল করিম মানিক, ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. দেবতোষ কুমার পাল, উপ-পরিচালক (হাসপাতাল) ডা. মো. খোরশেদ আলম, সহকারী পরিচালক ডা. পবিত্র কুমার দেবনাথ প্রমুখ।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দেশের সকল নার্স ও সহযোগী সকল স্বাস্থ্যকর্মীসহ দেশবাসীকে পবিত্র ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ে পবিত্র ঈদুল আজহার মাঝেও চিকিৎসাবো কার্যক্রম যাতে অব্যাহত থাকে সে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক খোঁজ-খবর রাখছেন। ঈদুল আজহার ছুটির মাঝেও যাতে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীরা যাতে প্রয়োজনীয় সেবা পান তা নিশ্চিত করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসক, নার্স, সহযোগী স্বাস্থ্যকর্মীরা দিনরাত সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ল্যাব খোলা রাখা হয়েছে।

dengue3

ল্যাবরেটরি মেডিসিন বিভাগ, ভাইরোলজি বিভাগসহ অন্যান্য বিভাগ রোগীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজনীয় সেবা দিচ্ছে। আজ পবিত্র ঈদুল আজহার দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল রোগীর জন্য উন্নতমানের বিশেষ খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সাধারণ রোগীদের সুবিধার্থে মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয়ের বহির্বিভাগ খোলা থাকবে। ১৪ আগস্টও বহির্বিভাগ খোলা থাকবে। আর ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বহির্বিভাগে সকাল ৯টা থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকবৃন্দ বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা প্রদান করবেন।

উল্লেখ্য, চলতি বছর এ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের বহির্বিভাগে ৫২৫৫ জন ডেঙ্গু রোগী সেবা নিয়েছেন। ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে শয্যা সংখ্যা ১৫০ থেকে ২০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়েছে। ডেঙ্গু সেলের মাধ্যমে ভর্তিকৃত রোগীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা, ওষুধ, স্টেশনারিসহ চিকিৎসাসেবা, বেড ভাড়া এমনকি আইসিইউ এবং এইচডিইউ সেবাও বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে। এছাড়াও ডেঙ্গু সেলে আসা রোগীদের প্রাথমিকভাবে সিবিসি, এনএস১, আইজিএম, আইজিএম ও আইজিজি বিনামূল্যে করা হচ্ছে।

এমইউ/বিএ/পিআর

টাইমলাইন