দুর্নীতির কারণে মশা নিধন হচ্ছে না : আবু সাইয়্যিদ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০২ পিএম, ২৯ জুলাই ২০১৯

দুর্নীতির কারণে মশা নিধন হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়্যিদ।

আজ সোমবার (২৯ জুলাই) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে গণফোরাম ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে ডেঙ্গু, খুন ধর্ষণের প্রতিবাদে আয়োজিত অবস্থান কর্মসূচিতে তিনি এ অভিযোগ করেন।

সাইয়্যিদ বলেন, ‘বর্তমানের মন্ত্রীরা যত কথা বলেন সব কথা এক জায়গায় করলে দেখা যাবে, বাংলাদেশে একটা মশাও নাই, সব মরে গেছে। কিন্তু তারা শুধ‌ু কথাই বলে, মশা মারার কোনো ব্যবস্থা করে না। দেশে তো একটা মশাও তো মরে না, কারণ তারা যে ওষুধ নিয়ে আসেন সেই ওষুধের মধ্যেও দুর্নীতি করেন, যার কারণে সে ওষুধ দ্বারা মশা নিধন হয় না।’

তিনি বলেন, ‘দেশের অর্থনীতি, সামাজিক অবক্ষয়ের কারণে দুঃশাসনের কারণে দেশের প্রতিটি মানুষ তাদের দাবি-দাওয়া নিয়ে মাঠে নেমেছে। কিন্তু কারো দাবি-দাওয়া মেনে নেয়া হচ্ছে না। এই সরকারের একটা নীতি আছে সেই নীতিটা হলো-যেভাবেই হোক লুট করে হোক, ট্যাক্স আদায়ের মাধ্যমে হোক, কর আদায়ের মাধ্যমে হোক গরিবদেরকে লুট করো ধনীদের কাছে দাও, যার কারণে বাংলাদেশে আজ ধনী- গরিবের যে বিরাট পার্থক্য, পৃথিবীতে এ রকম পার্থক্য আর কোনো দেশে নেই।’

বর্তমান সরকার গণতান্ত্রিক সরকার নয় মন্তব্য করে গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি বলেন, ‘এটা হচ্ছে স্বৈরাচারী, একনায়কতন্ত্র, জুলুমবাজ সরকার জনগণের সরকার নয়। এরা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয় নাই। তাই তারা জনগণকে দেখভাল করে না।’

তিনি বলেন, ‘উত্তরবঙ্গে প্রায় এক কোটি মানুষ পানিবন্দি; খাবার নাই, কাজ নাই? ওষুধ নাই দুর্বিষহভাবে জীবনযাপন করছে। কিন্তু এই সরকার তাদের জন্য কিছুই করছে না। তাই এই সরকারের ক্ষমতায় থাকার কোনো অধিকার নাই। এ সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামাতে হলে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। জনগণের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামানো যাবে।’

অবস্থান কর্মসূচিতে গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী ও সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

কেএইচ/এসআর/এমকেএইচ

টাইমলাইন