রাজবাড়ীতে ১৪ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজবাড়ী
প্রকাশিত: ০১:২২ পিএম, ৩০ জুলাই ২০১৯

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্নস্থানে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের পর এবার রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ১৪ জন ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। এর মধ্যে বর্তমানে সেখানে চিকিৎসাধীন আছেন ২ জন। তারা হলেন- লতা সরকার (২৯) এবং সম্রাট ব্যাপারী (১৪)।

এছাড়া ৪ জন ইনডোরে এবং বাকিরা আউটডোরে চিকিৎসা নিয়ে বিভিন্ন স্থানে চলে গেছেন। হাসপাতাল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী শনাক্তে শতভাগ পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যবস্থা না থাকায় রোগীদের বাইরের ক্লিনিক থেকে রক্ত পরীক্ষা করতে হচ্ছে।

আক্রান্ত রোগীরা বেশির ভাগই রাজবাড়ীর স্থায়ী বাসিন্দা। তবে ভর্তিকৃত রোগী লতা সরকার ঢাকা থেকে জ্বর নিয়ে রাজবাড়ীতে আসেন এবং স্থানীয় একটি ক্লিনিকে পরীক্ষায় তার ডেঙ্গু ধরা পরে।

dengu

লতা সরকার (২৯) রাজবাড়ী শহরের সজ্জনকান্দা এলাকার আনন্দ সরকারের মেয়ে। ঢাকায় চাকরি করেন। তিনি বলেন, ‘ঢাকায় খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে চাকরি করি এবং সেখানেই থাকি। গত মঙ্গলবার থেকে তার জ্বর। পরবর্তীতে রাজবাড়ীতে এসে শুক্রবার ডক্টরস কেয়ারে রক্ত পরীক্ষা করাই। তাতে ডেঙ্গু ধরা পড়লে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী সদর হাসপাতালে ভর্তি হই। বর্তমানে আগের থেকে অনেকটাই সুস্থ।’

অপরদিকে সম্রাট ব্যাপারী (১৪) বহরপুরের সাঈদ ব্যাপারীর ছেলে। দাদী জানান, তার নাতির প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে জ্বর এবং গায়ে ছোট ছোট ফোঁটা আছে। সোমবার সন্ধ্যায় হাসপাতালে ভর্তির পর ডাক্তাররা দেখে বলেছেন ডেঙ্গুর লক্ষণ। আজ (মঙ্গলবার) রক্ত পরীক্ষার পর বুঝতে পারবেন আসলে কী হয়েছে।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) শাহনিমা নার্গিস এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, এ পর্যন্ত এখানে আউট ও ইনডোর মিলে ১৪ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। বর্তমানে ২ জন ভর্তি আছেন, বাকিরা চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে ফিরে গেছেন।

তিনি আরও বলেন, ডেঙ্গু রোগীদের মশারি ব্যবহার, খাবারসহ বিভিন্ন পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এ হাসপাতালে প্রথম পর্যায়ের পরীক্ষার ব্যবস্থা না থাকলেও সিবিসি রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা যাচ্ছে।

রুবেলুর রহমান/এমএমজেড/পিআর

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]