চট্টগ্রামে ১০ দিনে ডেঙ্গু রোগী বেড়েছে সাড়ে চৌদ্দ গুণ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ১২:৪৮ পিএম, ৩১ জুলাই ২০১৯
ফাইল ছবি

ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে চট্টগ্রামে। গত ১০ দিনে চট্টগ্রামে ১৪৬ জন রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। অথচ চলতি মাসের ২০ জুলাই পর্যন্ত এ সংখ্যা ছিল মাত্র ৮। সে হিসাবে গত ১০ দিনে সাড়ে ১৪গুণ ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়েছে।

এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রামের রাঙ্গামাটি ও বান্দরবানেও ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। তবে আক্রান্তদের অধিকাংশ রোগী চট্টগ্রাম নগরের বিভিন্ন এলাকার। চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা ও আশপাশের জেলা থেকে আসা রোগীরা নগরের হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসাধীন।

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কন্ট্রোলরুম তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. নুরুল হায়দার জাগো নিউজকে বলেন, ‘গত ১০ দিনে চট্টগ্রামে ১৪৬ জন ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। হিসাব অনুসারে গত ১০ দিনে সাড়ে ১৪গুণ ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। আক্রান্তদের বড় অংশই ঢাকা থেকে ফেরত।’

সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় ২৯ জন ডেঙ্গু রোগী চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এরমধ্যে আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে ৪ জন, ইউএসটিসি হাসপাতালে একজন, বেসরকারি ন্যাশনাল হাসপাতালে ২ জন, রয়েল হাসপাতালে একজন, মেট্রোপলিটন হাসপাতালে ২ জন, ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন, সাউদার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ জন ও ইসলামিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একজন রোগী চিকিৎসাধীন। এছাড়া চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে একজন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

এর আগে সোমবার ৪১ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয় চট্টগ্রামের বিভিন্ন হাসপাতালে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৫ জন এবং নগরের বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে ২৬ রোগী শনাক্ত হয়। সব মিলিয়ে চলতি মাসে এখন পর্যন্ত চট্টগ্রাম নগরী ও জেলায় ১৫৭ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মিলেছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. আখতারুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমাদের হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২৯ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। তাদের ডেঙ্গু সেল বা কর্নারে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। সবমিলিয়ে চমেক হাসপাতালে ৭৬ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। আক্রান্তদের হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধীনে আলাদা ৩টি ব্লক করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। একটি মেডিকেল টিম সার্বক্ষণিক তাদের তদারকি করছেন।’

এদিকে পার্বত্য চট্টগ্রামের বান্দরবানেও ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত তিন রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে দুজনকে। এদের দুজনই ঢাকা ফেরত। তারা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ প্রথম বর্ষের ছাত্র বিজয়ন তঞ্চঙ্গ্যা ও নটরডেম কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক প্রথম বর্ষের ছাত্র রেমিউচিং মারমা। এছাড়া বান্দরবানের এক স্থানীয় বাসিন্দার রক্তেও ডেঙ্গু শনাক্ত করা হয়েছে। আক্রান্ত রোগীর নাম মফিজুল ইসলাম ভুট্ট। তিনি শহরের আর্মি পাড়ার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা।

এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রামের আরেক জেলা রাঙ্গামাটিতে এ পর্যন্ত ৩ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। গত ২৭ জুলাই ঢাকার ধানমন্ডি মহিলা কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্রী সোমা চাকমাকে ডেঙ্গু রোগী হিসাবে প্রথমে শনাক্ত করা হয়। পরে রাঙ্গামাটি শহরের আতীর্থ চাকমা (২) ও তোশিকা দেওয়ান (৭) নামে দুই শিশু ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক শওকত আকবর জাগো নিউজকে বলেন, ‘রাঙ্গামাটিতে গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত তিনজন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজন ঢাকা থেকে আসা আর বাকি দুজন রাঙ্গামাটি শহরের বাসিন্দা।’

আবু আজাদ/জেএইচ/এমকেএইচ

টাইমলাইন